মেঘ বৃষ্টি – প্রশ্ন উত্তর | Megh Bristhi – Question Answer

বিনামূল্যে ইবুকের স্যাম্পল ডাউনলোড করো 👇

to-the-point-ebook
capboloy-bayuprobaho-question-answer
শ্রেণি – অষ্টম | বিভাগ – ভূগোল | অধ্যায় – মেঘ বৃষ্টি | Megh Bristhi (Chapter – 5)

এই পর্বে রইল অষ্টম শ্রেণির ভূগোল বিভাগের পঞ্চম অধ্যায় – মেঘ বৃষ্টি – থেকে সম্পূর্ণ প্রশ্ন উত্তর আলোচনা।

সঠিক উত্তর নির্বাচন কর (MCQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান ১]

1। ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করো – (ক) বজ্রপাতসহ প্রবল বৃষ্টি – সিরাস মেঘ (খ) জলীয় বাষ্পের জলকণায় পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়া – বাষ্পীভবন (গ) বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল – পর্বতের প্রতিবাত ঢাল (ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ
উত্তর – সঠিক জোড়া (ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ।

2। Bumpy Cloud হল –
(ক) সিরোকিউমুলাস (খ) অল্টোস্ট্র্যাটাস (গ) কিউমুলোনিম্বাস মেঘ (ঘ) স্ট্র্যাটাস।

উত্তর – Bumpy Cloud হল (ক) সিরোকিউমুলাস।

3। চাঁদ ও সূর্যের চারপাশে বলয়ের বলয়ের আকারে অবস্থানকারী মেঘ হল –
(ক) সিরোকিউমুলাস (খ) সিরোস্ট্র্যাটাস (গ) অল্টোকিউমুলাস (ঘ) অল্টোস্ট্র্যাটাস

উত্তর – চাঁদ ও সূর্যের চারপাশে বলয়ের বলয়ের আকারে অবস্থানকারী মেঘ হল – (খ) সিরোস্ট্র্যাটাস।

4। সূর্যের তাপে জলের তরল অবস্থা থেকে গ্যাসীয় অবস্থার পরিবর্তিত হওয়াকে বলে – (ক) ঘনীভবন (খ) বাস্পীভবন (গ) অধঃক্ষেপণ (ঘ) পরিচলন
উত্তর- সূর্যের তাপে জলের তরল অবস্থা থেকে গ্যাসীয় অবস্থার পরিবর্তিত হওয়াকে বলে (খ) বাস্পীভবন।

5। __________ মেঘে আকাশ ছেয়ে থাকলে তাকে ম্যাকারেল আকাশ বলে। –
(ক) সিয়াল (খ) সিরোস্ট্র্যাটাস (ঘ) সিরোকিউমুলাস (ঘ) কিউমুলোনিম্বাস

উত্তর – মেঘের সৃষ্টি হয় বায়ুমণ্ডলের (ঘ) সিরোকিউমুলাস।

6। একটি বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল –
(ক) শিলং (খ) দিল্লী (গ) বর্ধমান (ঘ) কোনটিই নয়।

উত্তর – একটি বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল হল (ক) শিলং।

7। ভূপৃষ্ঠে যা কুয়াশা, আকাশে সেটাই –
(ক) শিশির (খ) বৃষ্টিপাত (গ) মেঘ (ঘ) তুষারপাত

উত্তর – ভূপৃষ্ঠে যা কুয়াশা, আকাশে সেটাই – (গ) মেঘ।

8। বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টিপাত হয় যে মেঘ থেকে, সেটি হল –
(ক) সিরোকিউমুলাস (খ) অল্টোকিউমুলাস (গ) স্ট্র্যাটাস (ঘ) কিউমুলোনিম্বাস

উত্তর – বজ্রবিদ্যুৎ বৃষ্টিপাত হয় যে মেঘ থেকে, সেটি হল – (ঘ) কিউমুলোনিম্বাস।

9। মেঘের মধ্যে জলকণাগুলির ব্যাস হল –
(ক) 2 মিমি (খ) 0.2 মিমি (গ) 0.02মিমি (ঘ) 0.002 মিমি

উত্তর – মেঘের মধ্যে জলকণাগুলির ব্যাস হল (গ) 0.02মিমি।

10। মাঝারি উচ্চতায় যে মেঘ একটানা বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেয়, তা হল –
(ক) সিরাস (খ) সিরোকিউমুলাস (গ) অল্টোস্ট্র্যাটাস (ঘ) স্ট্র্যাটোকিউমুলাস

উত্তর – মাঝারি উচ্চতায় যে মেঘ একটানা বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দেয়, তা হল (গ) অল্টোস্ট্র্যাটাস।


আরো পড়ো → চন্দ্রগুপ্ত গল্পের প্রশ্ন উত্তর আলোচনা

অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন (VSAQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান ১]

1। ঘূর্ণবাতের চোখ কাকে বলে?
উত্তর – ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে বায়ুর চাপ সবচেয়ে কম থাকে, এই অংশের নাম ঘূর্ণবাতের চোখ বলে।

2। স্লিট কি?
উত্তর – জলকণা ও তুষার কণার আংশিক মিশ্রিত রূপকে স্লিট বলে।

3। তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে থাকলে কী প্রকার অধঃক্ষেপণের সম্ভাবনা থাকে?
উত্তর – তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে থাকলে তুষারপাতের সম্ভাবনা থাকে।

4। শিশির কি?
উত্তর – ভূমি সংলগ্ন জলীয় বাষ্প, শীতল ও ঘনীভূত হয়ে ছোট ছোট জলবিন্দু গঠন করে, তাকে শিশির বলে।

5। শিশিরাঙ্ক কাকে বলে?
উত্তর – যে তাপমাত্রায় বায়ু সম্পৃক্ত তা হল ঐ বায়ুর শিশিরাঙ্ক।


আরো পড়ো → শিলা অধ্যায়ের প্রশ্ন উত্তর আলোচনা

6। বায়ুমণ্ডলের কোন্‌ স্তরে আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটে?
উত্তর – বায়ুমণ্ডলের ট্রপোস্ফিয়ার স্তরে আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটে।

7। বৃষ্টিপাত পরিমাপ করা হয় কোন যন্ত্রের সাহায্যে?
উত্তর – বৃষ্টিপাত পরিমাপ করা হয় রেনগজের যন্ত্রের সাহায্যে।

8। একটি নিম্ন উচ্চতার মেঘের উদাহরণ দাও।
উত্তর – একটি নিম্ন উচ্চতার মেঘের উদাহরণ হল স্ট্র্যাটোকিউমুলাস।

9। ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত ক্যারিবিয়ান সাগরে কি নামে পরিচিত?
উত্তর – ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত ক্যারিবিয়ান সাগরে ‘হ্যারিকেন’ নামে পরিচিত।

10। শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টি কাকে বলে?
উত্তর – সমুদ্রের জলীয়বাষ্পপূর্ণ বায়ু প্রবাহিত হবার সময়, কোনো পর্বত গাত্রে বাধা পেয়ে যে ধরণের, বৃষ্টি ঘটায় তাকে শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টি বলে।


আরো পড়ো → চাপবলয় ও বায়ুপ্রবাহ অধ্যায়ের প্রশ্ন উত্তর আলোচনা

সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন (SAQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান ৩]

1। মেঘ কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উত্তর – মেঘ জলীয় বাষ্প দিয়ে তৈরি। সূর্যের তাপে সমুদ্র, নদী, পুকুরের জল উত্তপ্ত হয়ে বাষ্পে পরিণত হয়ে বায়ুতে মেশে। এছাড়াও গাছপালার বাষ্পমোচনের ফলে বাতাসে জলীয় বাষ্প জমা হয়। এই জলীয় বাষ্প বাতাসের চেয়ে হালকা বলে এটি সহজে উপরের দিকে উঠতে থাকে। অপরের শীতল বায়ুর সংস্পর্শে এসে এই জলীয়বাষ্প ধারণ ক্ষমতা তত কমে যায়। ধীরে ধীরে ঐ আর্দ্র বায়ুর তাপমাত্রা শিশিরাঙ্কে পৌঁছায় এবং বায়ু সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। এই সম্পৃক্ত বায়ু আরও শীতল হলে জলীয়বাষ্প ঘনীভূত হয়ে ছোট ছোট জলকণায় পরিণত হয়। এই জলকণা বায়ুতে ভাসমান ধূলিকণা, লবণকণাকে অবলম্বন করে মেঘ হিসেবে ভেসে বেড়ায়। সাধারণত মেঘের জলকণার ব্যাস হয় ০.০২ মিলিমিটারের। বায়ুমণ্ডলের ট্রপোস্ফিয়ারে মেঘের সৃষ্টি হয়।

2। বৃষ্টিপাত কীভাবে ঘটে ও কয় প্রকার?

উত্তর – সূর্যের তাপে নদী, হ্রদ, জলাশয়ের জল বাষ্পীভূত হয়ে আকাশে উঠে গিয়ে ধূলিকণাকে আশ্রয় করে মেঘের সৃষ্টি করে, এই মেঘ ক্রমশ ভারী ও ঘনীভূত হয় এবং তা পৃথিবীর আকর্ষণে বৃষ্টির আকারে নেমে আসে। এইভাবে বৃষ্টিপাত ঘটে।
বৃষ্টিপাত মূলত তিন প্রকার – পরিচলন, শৈলোৎক্ষেপ এবং ঘূর্ণ বৃষ্টিপাত।

3। অধঃক্ষেপণ কাকে বলে?

উত্তর – পৃথিবীর অভিকর্ষ টানের প্রভাবে বায়ুমণ্ডল থেকে জলকণা বা বরফকণা (তরল বা কঠিন অবস্থায়) ভূপৃষ্ঠে নেমে এলে তাকে বলে অধঃক্ষেপণ। বৃষ্টিপাত হল প্রধান অধঃক্ষেপণ। সম্পৃক্ত জলকণা মেঘের মধ্যে মিলিত হয়ে আকারে বড় হয়ে ভারী হলে বাতাসে ভেসে থাকতে পারেনা, ফলে প্রথিবির অভিকর্ষ টানের প্রভাবে বৃষ্টির আকারে ঝরে পড়ে।


আরো পড়ো → জলবায়ু অঞ্চল অধ্যায়ের প্রশ্ন উত্তর আলোচনা

WBPorashona.com-এর পোস্ট আপডেট নিয়মিত পাবার জন্য –


আমাদের কাজ থেকে উপকৃত হলে এই লেখাটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।

নিয়মিত প্রশ্ন উত্তরের আপডেট পাও নিজের মোবাইলে 👇

wbporashona-whatsapp-channel