প্রাণী হরমোন – প্রশ্ন উত্তর | Animal Hormone – Question Answer | প্রাণীদের সাড়াপ্রদান এবং রাসায়নিক সমন্বয়

মাধ্যমিকে প্রতিটি অধ্যায়ের প্রস্তুতি নিশ্চিত করার সেরা উপায় ↓

WBP-CT-Banner_offer
prani-hormon
শ্রেণি – দশম | বিভাগ – জীবনবিজ্ঞান| অধ্যায় – প্রাণী হরমোন | Prani Hormone (Chapter 3)

এই পর্বে রইল দশম শ্রেণির জীবন বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় অধ্যায় – প্রাণী হরমোন থেকে কয়েকটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন – উত্তর আলোচনা।

সঠিক উত্তর নির্বাচন করো। (MCQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান 1]

1| প্রদত্ত গ্রন্থিগুলির ভিতর কোনটি অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি?
ক) লালাগ্রন্থি খ) যকৃত গ) অশ্রুগ্রন্থি ঘ) থাইরয়েড

উত্তর- প্রদত্ত গ্রন্থিগুলির ভিতর অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি হল- ঘ) থাইরয়েড

2|মহিলাদের ক্ষেত্রে ফলিকল স্টিমুলেটিং হরমোন ডিম্বাশয়ের গ্রাফিয়ান ফলিকল থেকে যে হরমোন ক্ষরণে উদ্দীপনা যোগায় সেটি হল-
ক) TSH খ) ADH গ) ইস্ট্রোজেন ঘ) ACTH

উত্তর- মহিলাদের ক্ষেত্রে ফলিকল স্টিমুলেটিং হরমোন ডিম্বাশয়ের গ্রাফিয়ান ফলিকল থেকে যে হরমোন ক্ষরণে উদ্দীপনা যোগায় সেটি হল-গ) ইস্ট্রোজেন।

3|ক্যালোরিজেনিক হরমোন হল-
ক) STH খ) থাইরক্সিন গ) ACTH ঘ) GTH

উত্তর- ক্যালোরিজেনিক হরমোন হল-খ) থাইরক্সিন।

4|হাইপোথ্যালামাস কোন পিটুইটারি হরমোন সংরক্ষিত রাখে?
ক) TSH খ) STH গ) ADH ঘ) থাইরক্সিন

উত্তর- হাইপোথ্যালামাস গ) ADH পিটুইটারি হরমোন সংরক্ষিত রাখে।

5| অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত হয় না-
ক) ইনসুলিন খ) থাইরক্সিন গ) পেপসিন ঘ) অ্যাড্রিনালিন

উত্তর- অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি থেকে গ) পেপসিন নিঃসৃত হয় না।

6|রক্তের অতিরিক্ত গ্লুকোজকে যকৃতে ও পেশিকোশে গ্লাইকোজেনে রুপান্তরকারী হরমোনটির নাম হল-
ক) গ্লুকাগন খ) অ্যাড্রিনালিন গ) ইনসুলিন ঘ) থাইরক্সিন

উত্তর- রক্তের অতিরিক্ত গ্লুকোজকে যকৃতে ও পেশিকোশে গ্লাইকোজেনে রুপান্তরকারী হরমোনটির নাম হল-গ) ইনসুলিন।

7| ডিম্বাণুর বৃদ্ধিতে সাহায্য করে যে হরমোন-
ক) টেস্টোস্টেরন খ) ইস্ট্রোজেন গ) গ্লুকাগন ঘ) ইনসুলিন

উত্তর- ডিম্বাণুর বৃদ্ধিতে সাহায্য করে যে হরমোন-খ) ইস্ট্রোজেন।

8| প্রদত্ত কোনটি অ্যাড্রিনালিন হরমোনের কাজ নয়?
ক) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ খ) ঘর্মক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ
গ) শ্বাসক্রিয়ার হার নিয়ন্ত্রণ ঘ) শুক্রাণুর নিষিক্তকরণ ক্ষমতা প্রদান করা।

উত্তর- যেটি অ্যাড্রিনালিন হরমোনের কাজ নয় সেটি হল- ঘ) শুক্রাণুর নিষিক্তকরণ ক্ষমতা প্রদান করা।

9| রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যাওয়াকে বলে-
ক) গ্লাইকোসুরিয়া খ) গ্লাইসেমিয়া গ) হাইপারোপিয়া ঘ) ডায়াবেটিস মেলিটাস

উত্তর- রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যাওয়াকে বলে – ঘ) ডায়াবেটিস মেলিটাস।

10| অগ্র পিটুইটারি থেকে নিঃসৃত হরমোন হল-
ক) ইস্ট্রোজেন খ) গ্লুকাগন গ) অ্যাড্রিনালিন ঘ) গ্রোথ হরমোন

উত্তর- অগ্র পিটুইটারি থেকে নিঃসৃত হরমোন হল- ঘ) গ্রোথ হরমোন।

আরো পড়ো → দশম শ্রেণির ইতিহাসের তৃতীয় অধ্যায়ের প্রশ্ন – উত্তর

শূন্যস্থান পূরণ করো।

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান 1]

1। যে সকল গ্রন্থির নালী থাকে না তাদের ………… গ্রন্থি বলে।
উত্তর- যে সকল গ্রন্থির নালী থাকে না তাদের অনাল গ্রন্থি বলে।

2| অন্তঃক্ষরা ও বহিঃক্ষরা-উভয় অংশ বর্তমান থাকলে তাকে ………… গ্রন্থি বলা হয়।
উত্তর- অন্তঃক্ষরা ও বহিঃক্ষরা-উভয় অংশ বর্তমান থাকলে তাকে মিশ্র গ্রন্থি বলা হয়।

3। দৈহিক বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণকারী হরমোন হল …………।
উত্তর- দৈহিক বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণকারী হরমোন হল গ্রোথ হরমোন।

4। থাইরয়েড গ্রন্থির ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করে ………… হরমোন।
উত্তর- থাইরয়েড গ্রন্থির ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করে থাইরয়েড স্টিমুলেটিং হরমোন।

5। পরিণত ডিম্বথলি থেকে ক্ষরিত হরমোনটি হল …………।
উত্তর- পরিণত ডিম্বথলি থেকে ক্ষরিত হরমোনটি হল ইস্ট্রোজেন।

আরো পড়ো → উদ্ভিদ হরমোন প্রশ্ন – উত্তর

একটি বাক্যে উত্তর দাও। (VSAQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান 1]

1। ইনসুলিন হরমোনটি কোন গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত হয়?
উত্তর- ইনসুলিন হরমোনটি অগ্নাশয় গ্রন্থির আইলেটস্‌ অফ ল্যাঙ্গারহ্যানসের বিটা কোশ থেকে নিঃসৃত হয়।

2। TSH –এর সম্পূর্ণ নাম লেখো।
উত্তর- TSH –এর সম্পূর্ণ নাম হল থাইরয়েড স্টিমুলেটিং হরমোন।

3। ACTH –এর সম্পূর্ণ নাম কী?
উত্তর- ACTH –এর সম্পূর্ণ নাম হল অ্যাড্রিনোকর্টিকোট্রপিক হরমোন।

4। ইস্ট্রোজেন কোন গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয়?
উত্তর- ইস্ট্রোজেন ডিম্বাশয়ের ফলিকল গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয়।

5। আপৎকালীন হরমোনটির নাম লেখো।
উত্তর- আপৎকালীন হরমোনটির নাম হল অ্যাড্রিনালিন।

6। শুক্রাণু উৎপাদনে সাহায্যকারী হরমোনটির নাম লেখো।
উত্তর- শুক্রাণু উৎপাদনে সাহায্যকারী হরমোনটির নাম হল টেস্টোস্টেরন।

7। GTH –এর সম্পুর্ন নাম কী?
উত্তর- GTH –এর সম্পুর্ন নাম হল- গোনাডোট্রপিক হরমোন।

8। থাইরয়েড গ্রন্থির হরমোন ক্ষরণের উদ্দীপনা প্রদান করে কোন হরমোন?
উত্তর- থাইরয়েড গ্রন্থির হরমোন ক্ষরণের উদ্দীপনা প্রদান করে থাইরয়েড স্টিমুলেটিং হরমোন (TSH)

9। সুপ্রারেনাল গ্রন্থি কোনটি?
উত্তর- সুপ্রারেনাল গ্রন্থি হল বৃক্কের উপর অবস্থিত অ্যাড্রিনাল অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি।

10। মুত্রের মাধ্যমে শর্করা নির্গত হওয়াকে কী বলে?
উত্তর- মুত্রের মাধ্যমে শর্করা নির্গত হওয়াকে গ্লুকোসুরিয়া বলে।

আরো পড়ো → Father’s help প্রশ্ন – উত্তর

সংক্ষিপ্ত উত্তরভিত্তিক প্রশ্ন (SAQ)

[প্রতিটি প্রশ্নের প্রশ্নমান 2/3]

1। প্রাণী হরমোনের তিনটি বৈশিষ্ট্য লেখো।
উত্তর- প্রাণী হরমোনের তিনটি বৈশিষ্ট্য হল–
i) প্রাণী হরমোন অনাল গ্রন্থি থেকে সরাসরি রক্তে ক্ষরিত হয়।
ii) প্রাণী হরমোন রক্তের মাধ্যমে বাহিত হয়ে নির্দিষ্ট লক্ষ্য কোশে পৌঁছোয়।
iii) হরমোন যেখানে সংশ্লেষিত হয় সেই স্থানে সঞ্চিত থাকে না, থাকলেও খুব কম পরিমাণে সঞ্চিত থাকে।

2। ডায়াবেটিস মেলিটাসের লক্ষণগুলি কী কী?
উত্তর- ডায়াবেটিস মেলিটাসের লক্ষণগুলি হল-
i) ডায়াবেটিস মেলিটাস আক্রান্ত রোগীর রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যায়। এর ফলে ক্লান্তিভাব দেখা যায়।
ii) ডায়াবেটিস রোগীর ক্লান্তভাব থাকার কারণে সাধারণ ব্যক্তির তুলনায় বেশি ঘুম পায় এবং স্বভাব খিটখিটে হয়ে যায়।
iii) ডায়াবেটিস রোগীর দেহে কোনো জায়গা আঘাত প্রাপ্ত হলে ক্ষতস্থান নিরাময় হতে সাধারণ ব্যক্তির থেকে বেশি সময় লাগে।

3।টেস্টোস্টেরন ও অ্যাড্রিনালিন দুটির উৎস লেখ।
উত্তর- টেস্টোস্টেরনের উৎস – শুক্রাশয়ের লেডিগ কোশ থেকে উৎপন্ন হয়।
অ্যাড্রিনালিনের উৎস – অ্যাড্রেনাল গ্রন্থির অ্যাড্রেনাল মেডালা অংশ থেকে উৎপন্ন হয়।

3।ইস্ট্রোজেন হরমোনের দুটি কাজ লেখ।
উত্তর- ইস্ট্রোজেন হরমোনের দুটি কাজ-
i) ইস্ট্রোজেন হরমোনের প্রভাবে বয়ঃসন্ধিকালে স্ত্রী দেহের যৌনাঙ্গের বিকাশ ঘটে, বালিকাসুলভ অবস্থা থেকে ধীরে ধীরে কিশোরীতে (teenage) পরিণত হয়।
ii) ইস্ট্রোজেন হরমোন স্ত্রী দেহে ঋতুচক্র নিয়ন্ত্রণ করে।

4। “ইনসুলিন ও গ্লুকাগন পরস্পর বিপরীতধর্মী কাজ করে”- ব্যাখ্যা করো।
উত্তর- গ্লুকাগন ইনসুলিনের বিপরীত কাজ করে। রক্তে শর্করার পরিমাণ হ্রাস পেলে গ্লুকাগন যকৃত ও পেশীকোশে সঞ্চিত গ্লাইকোজেনকে গ্লাইকোজেনোলাইসিস পদ্ধতিতে ভেঙে গ্লুকোজে পরিণত করে, নিওগ্লুকোজেনেসিস পদ্ধতিতে ফ্যাট, প্রোটিন ইত্যাদি অশর্করা বস্তু থেকে শর্করা বা গ্লুকোজ প্রস্তুত করে।

আর রক্তে শর্করার পরিমাণ বৃদ্ধি পেলে ইনসুলিন গ্লুকোজকে একক শর্করার পলিমার গ্লাইকোজেনে রূপান্তর করে এবং নিউগ্লুকোজেনেসিস পদ্ধতি দ্বারা গ্লুকোজ সংশ্লেষে বাঁধা দেয়। এইভাবে ইনসুলিন রক্তে শর্করার পরিমাণ কমায় ও গ্লুকাগন রক্ত শর্করার পরিমাণ বাড়ায়।

5। হরমোন ও উৎসেচকের মধ্যে একটি সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য লেখ।
উত্তর- হরমোন ও উৎসেচকের মধ্যে একটি সাদৃশ্য হল– হরমোন ও উৎসেচক উভয়ই জৈবনিক বিপাক ক্রিয়াকে প্রভাবিত করে।
হরমোন ও উৎসেচকের মধ্যে একটি বৈসাদৃশ্য হল– হরমোন অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয়ে রক্তে মিশে লক্ষ্য কোশে পৌঁছে যায়।
উৎসেচক বহিঃক্ষরা গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয়ে নালির মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়ে নির্দিষ্ট স্থানে ক্রিয়া করে।

6। পিটুইটারী গ্রন্থি কোথায় অবস্থিত? অগ্র পিটুইটারী থেকে নিঃসৃত দুটি হরমোনের সম্পূর্ণ নাম লেখ।
উত্তর- পিটুইটারী গ্রন্থি একটি মটর দানার মতো আকৃতি বিশিষ্ট গ্রন্থি বিশেষ, যা মস্তিষ্কের মূল দেশে (At the base of the brain) হাইপোথ্যালামাসের নীচে স্ফেনয়েড অস্থির সেলা টারসিকা প্রকোষ্ঠে অবস্থিত।

অগ্র পিটুইটারী থেকে নিঃসৃত দুটি হরমোনের সম্পূর্ণ নাম হল অ্যাড্রিনোকর্টিকোট্রপিক হরমোন বা ACTH এবং থাইরয়েড স্টিমুলেটিং হরমোন বা TSH।

7। মানবদেহে জননগ্রন্থি থেকে হরমোন ক্ষরণে GTH-এর দুটি ভূমিকা লেখো।
উত্তর-মানবদেহে জননগ্রন্থি হল ডিম্বাশয় এবং শুক্রাশয়।
GTH বা গোনাডোট্রপিক হরমোনগুলি হল FSH, LH, ICSH ও প্রোল্যাকটিন।
i) LH – এই হরমোন স্ত্রী দেহে ডিম্বাশয়ের কর্পাসলিউটিয়াম বা পীতগ্রন্থির বৃদ্ধি ঘটিয়ে প্রোজেস্টেরন হরমোন ক্ষরণে সাহায্য করে।
ii) ICSH – এই হরমোন পুরুষ দেহে শুক্রাশয়ের ইন্টারস্টিসিয়াল কোশকে উদ্দীপিত করে ও টেস্টোস্টেরন হরমোন ক্ষরণে সাহায্য করে।

8।TSH এর পুরো নাম লেখো। হরমোনের দ্বৈত নিয়ন্ত্রণ ধর্মটি ব্যাখ্যা করো।
উত্তর- TSH এর পুরো নাম থাইরয়েড স্টিমুলেটিং হরমোন।
যখন কোনো একটি গ্রন্থির হরমোন ক্ষরণ পরোক্ষভাবে অপর একটি হরমোন ক্ষরণকারী গ্রন্থির হরমোন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় ,তখন সেই প্রক্রিয়াকে দ্বৈত নিয়ন্ত্রণ বা ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ বলে। যেমন- অগ্র পিটুইটারি থেকে ক্ষরিত TSH দ্বারা থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে নির্গত থাইরক্সিন হরমোনের ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ।
ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ দু-প্রকার হয়। যথা– ধনাত্মক ফিডব্যাক ও ঋণাত্মক ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ।
ধনাত্মক ফিডব্যাক – একটি উদাহরণের সাহায্যে বোঝা যাক। রক্তে থাইরক্সিনের মাত্রা স্বাভাবিকের থেকে কম হলে থাইরক্সিন হাইপোথ্যালামাসকে TRH ক্ষরণে উদ্দীপিত করে ফলে TRH ক্ষরণ বৃদ্ধি পেলে পিটুইটারি থেকে TSH ক্ষরণও বেড়ে যায়। TSH থাইরয়েডকে থাইরক্সিন ক্ষরণে উদ্দীপিত করে, ফলে রক্তে থাইরক্সিনের মাত্রা স্বাভাবিক হয়। এটি হল ধনাত্মক ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ।

ঋণাত্মক ফিডব্যাক – রক্তে থাইরক্সিনের মাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বেড়ে গেলে TRH কম ক্ষরণ হয়, ফলে TSH ক্ষরণও বাধা প্রাপ্ত হয়। TSH ক্ষরণ বাধা পেলে থাইরয়েড থেকে থাইরক্সিন নিঃসরণ বন্ধ হয়। এটি হল ঋণাত্মক ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ।

9। জরুরীকালীন হরমোন কাকে বলে। এর দুটি কাজ লেখ।
উত্তর- উত্তেজনা, রাগ, ভয়, আবেগ, হতাশা প্রভৃতি তাৎক্ষণিক মুহূর্তে অ্যাড্রেনালিন ক্ষরিত হয়ে রক্তের সাথে মিশে গিয়ে সারা দেহে ছড়িয়ে পড়ে এবং দেহকে ওই অবস্থার সঙ্গে মানানসই হতে সাহায্য করে বলে অ্যাড্রেনালিনকে জরুরীকালীন হরমোন বলে।
কাজ- i) এই হরমোন হৃৎস্পন্দনের হার ও হার্দ উৎপাদন বৃদ্ধি করে।
ii) ব্রংকিওলকে প্রসারিত করে শ্বাস ক্রিয়ার হার বাড়ায়।

10। হরমোন ও স্নায়ুতন্ত্রের মধ্যে একটি গঠনগত ও কার্যগত পার্থক্য লেখ।

আরো পড়ো → ইতিহাসের ধারণা প্রশ্ন উত্তর

WBPorashona.com-এর পোস্ট আপডেট নিয়মিত পাবার জন্য –


আমাদের কাজ থেকে উপকৃত হলে এই লেখাটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করার অনুরোধ রইল।

WBP-YT-Banner